খালেদা জিয়ার মুক্তির ইস্যুতে বিএনপিকে হতাশ করেছেন কূটনীতিকরা!

  • ৪-Sep-২০১৯ ০৩:৩৭ অপরাহ্ন
Ads

::উৎপল দাস::

বিএনপির চেয়ারপারসন ও দুইবারের বৈধ সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া দুর্নীতি মামলায় কারাবরণ করেছেন। তার শারিরীক অবস্থার কথা চিন্তা করে তাকে মুক্ত করে চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেয়ার পরিকল্পনা নিয়ে বিদেশী কূটনীতিকদের কাছে ধর্ণা দিয়ে আবারো হতাশ হয়েছে বিএনপি এবং যুক্তফ্রন্টের নেতারা। শনিবার সকালে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খানের বাসায় কয়েকটি প্রভাবশালী রাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতদের সাথে অনানুষ্ঠানিক এক বৈঠকে খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টির জন্য তাদের কাছে আবেদন করেন বিএনপি ও যুক্তফ্রন্টের নেতারা। তখন এ বিষয়ে ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার, ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত, কানাডার উপ-রাষ্ট্রদূত ও জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধির পক্ষ থেকে ইতিবাচক কোনো সাড়া পায়নি দলটি। এমনকি বিষয়টি নিয়ে আদালতের রায় এবং বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় উল্লেখ করে তেমন কোনো কথাও বলতে রাজি হননি বিদেশীরা। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র বিষয়টি ভোরের পাতাকে নিশ্চিত করেছে। 

এছাড়া বৈঠকে খালেদা জিয়াকে চরম অসুস্থ দাবি করে তার সঠিক চিকিৎসা সরকারের কাছ থেকে আদায়ের জন্য কূটনীতিকদের অবহিত করা হলে, এ বিষয়ে তারা কথা বলতে পারেন বলে কূটনৈতিকভাবেই জবাব দিয়েছেন বলে জানা গেছে। তবে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে সরকারের সঙ্গেই কাজ করার ইচ্ছের কথাও জানিয়েছেন বিদেশী কূটনীতিকরা। 

বুধবার সকালে গুলশান-২ নম্বরে ৩৬ রোডের ৯ নম্বর বাড়িতে সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে এ বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ও গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বৈঠকে উপস্থিত আছেন। 

উল্লেখ্য, আজকের  এই বৈঠকটি করানোর ক্ষেত্রে গত কয়েকমাস ধরে বিএনপি থেকে মনোনীত সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা ও বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদ বিভিন্ন জায়গায় নানা ধরণের যোগাযোগ রক্ষা করেছেন। এমনকি কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করানোর জন্য নানা ধরনের তদবিরও করিয়েছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।
 

Ads
Ads