ঢাকা দক্ষিণের ৩৬৩১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

  • ১-Sep-২০১৯ ০২:৪৩ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) চলতি ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে তিন হাজার ৬৩১ কোটি ৪০ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা করেছে।

রোববার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নগর ভবনের অডিটরিয়ামে এই বাজেট ঘোষণা করেন ডিএসসিসি’র মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

২০১৮-১৯ অর্থবছরে তিন হাজার ৫৯৮ কোটি ৭৫ লাখ টাকার বাজেট দিয়েছিল ডিএসসিসি। এরমধ্যে এক হাজার ৯০২ কোটি ৯৫ লাখ টাকার বাজেট বাস্তবায়ন হয়েছে।

এবারের বাজেটে মোট রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা গত অর্থবছরের চেয়ে ৩২ কোটি ৬৫ লাখ টাকা বাড়িয়ে ধরা হয়েছে। 

বাজেটে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৯৭২ কোটি ৮০ লাখ টাকা। সরকারি ও বৈদেশিক সাহায্য নির্ভর প্রকল্প থেকে দুই হাজার ৪৪৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকা, আর অন্যান্য আয় ধরা হয়েছে ৭ কোটি ৬৭ লাখ টাকা।

এবারের বাজেটে মোট উন্নয়ন ব্যয় ধরা হয়েছে ২ হাজার ৮৯৪ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। পরিচালনা ব্যয় ৬২৯ কোটি ৩৭ লাখ টাকা এবং অন্যান্য ব্যয় ৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

এবারের বাজেটে রাজস্ব খাতে আয়ের বড় অংশ ধরা হয়েছে কর থেকে। এই খাত থেকে ৩৫০ কোটি টাকা আয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। বাজার সালামি থেকে ৩১০ কোটি, ট্রেড লাইসেন্স থেকে ৯০ কোটি টাকা আয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে ডিএসসিসি। এছাড়া সম্পত্তি হস্তান্তর কর থেকে আয় ধরা হয়েছে ১০৫ কোটি টাকা।

গত বছর সংশোধিত বাজেটে মশা নিধনে বরাদ্দের পরিমাণ ১৯ কোটি ৫২ লাখ টাকা থাকলেও আসন্ন ২০১৯-২০২০ বাজেটে মশা নিয়ন্ত্রণের জন্য ৪৩ কোটি ৩০ লাখ টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

এছাড়া বাজেটে জ্বালানিসহ মশার ওষুধের জন্য ৩৮ কোটি টাকা, কচুরিপানা, আগাছা পরিষ্কার ও পরিচর্যার জন্য এক কোটি ৩০ লাখ টাকা এবং ফগার, হুইল, স্প্রে মেশিন পরিবহনের জন্য চার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

নতুন বাজেট সম্পর্কে মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘ডেঙ্গুতে যারা মারা গেছেন এবং আক্রান্ত হয়েছেন তাদের জন্য আমার সমবেদনা।’

তিনি বলেন, ‘যানজট নিরসন, বাস রুট র‌্যাশনালাইজেশন, কমিউনিটি অ্যাম্বাসেডর, বঙ্গবন্ধু জলবায়ু উদ্বাস্তু আশ্রয় কেন্দ্র, বিনামূল্যে দাফনের ব্যবস্থা, জনতার মুখোমুখি জনপ্রতিনিধি অনুষ্ঠান, জলসবুজে ঢাকা প্রকল্পসহ নানা কর্মসূচি বাস্তবান করা হচ্ছে। বিগত চার বছরে আমরা যা করেছি, তা কয়েক দশকেও হয়নি। শতভাগ এলইডি লাইট লাগানো হয়েছে।’

বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, সচিব মোস্তফা কামাল মজুমদার, প্রধান হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা খাদেমুল করিম ইকবাড় প্রমুখ।

Ads
Ads