অতিরিক্ত ডিআইজি হলেন মোল্যা নজরুল-মোস্তাকসহ ২০ কর্মকর্তা

  • ১৮-Aug-২০১৯ ০৮:০৭ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

পুলিশ সুপার (এসপি) পদমর্যাদার ২০ কর্মকর্তাকে অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রদানপূর্বক পদায়ন করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

রোববার (১৮ আগস্ট) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের পুলিশ অধিশাখা-১ এর উপসচিব ধনঞ্জয় কুমার দাস স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে পদোন্নতির এই আদেশ দেওয়া হয়।

অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত ২০ পুলিশ কর্মকর্তা হলেন- নৌ পুলিশ ঢাকার অতিরিক্ত ডিআইজি (চলতি দায়িত্বে) মো. হাবিবুর রহমান, রাজশাহী মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) তানভীর হায়দার চৌধুরী, খুলনা মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) এসএম ফজলুর রহমান, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের সহকারী পুলিশ মহাপরিদর্শক (এআইজি) মো. কামরুল আহসান, এসবির বিশেষ পুলিশ সুপার (এসএসপি) প্রলয় চিসিম, এসবির বিশেষ পুলিশ সুপার (এসএসপি) এসএম আইনুল বারী, বরিশাল মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) হাবিবুর রহমান খান, পিবিআই’র পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আবুল কালাম আজাদ, নওগাঁ জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. ইকবাল হোসেন, শিল্পাঞ্চল পুলিশ ঢাকার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. গোলাম রউফ খান, টিঅ্যান্ডআইএম ঢাকার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শফিকুল ইসলাম, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের সহকারী পুলিশ মহাপরিদর্শক (এআইজি) শামীমা বেগম, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) সালমা বেগম, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পলিশ কমিশনার (ডিসি) মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ, নৌ পুলিশ ঢাকার পুলিশ সুপার (এসপি) একেএম এহসান উল্লাহ, ঢাকা জেলার পুলিশ ‍সুপার (এসপি) শাহ মিজান শাফিউর রহমান, টিঅ্যান্ডআইএম ঢাকার পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ তবারক উল্লাহ, সিআইডি ঢাকার পুলিশ সুপার (এসপি) মোল্যা নজরুল ইসলাম, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) এস. এম. মোস্তাক আহমেদ খান ও চাঁদপুর জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) জিহাদুল কবির।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস চক্রের সদস্যদের গ্রেপ্তার করে আলোচিত হয়েছিলেন সিআইডির মোল্যা নজরুল ইসলাম। মাদক মামলার তদন্ত করতে গিয়ে ইয়াবা চোরাচালানের চক্র এবং তাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিকাশ এজেন্টদের ধরেছিলেন তিনি।

এছাড়া বিদেশে পাঠানোর নাম করে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া, বিদেশে জিম্মি করে পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়কারী চক্রসহ অনেক অপরাধী চক্র ধরা পড়ে সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম ইউনিট থেকে সাইবার ও অর্থনৈতিক অপরাধ দমনে নেতৃত্ব দেওয়া মোল্যা নজরুলের হাত ধরে।

এদিকে ২০১৬ সালের ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান ক্যাফেতে জঙ্গি হামলার সময় এই এলাকার উপ-কমিশনারের দায়িত্বে ছিলেন মোস্তাক আহমেদ। এরপরে তিন বছর ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ এই এলাকার পুলিশ প্রধানের দায়িত্ব সামলে এসেছেন তিনি, পুরো এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় এসেছে তার সময়েই।

পদোন্নতিপ্রাপ্ত সবাইকে নতুন কর্মস্থলে বদলি করা হয়েছে। মোল্যা নজরুলকে পাঠানো হয়েছে নৌ পুলিশে, মোস্তাক আহমেদকে চট্রগ্রাম মহানগর পুলিশে, হাবিবুর রহমানকে ট্রাফিক ট্রেনিং অ্যান্ড ড্রাইভিং স্কুলে, এহসান উল্লাহকে বরিশাল রেঞ্জে, তানভীর হায়দার চৌধুরীকে হাইওয়ে পুলিশে, ফজলুর রহমানকে খুলনা মহানগরে, শামীমা বেগমকে টাঙ্গাইল পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারে, প্রলয় চিসিমকে রবিশাল মহানগর পুলিশে, আইনুল বারীকে পুলিশের বিশেষ শাখায়, হাবিবুর রহমান খানকে খুলনা পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারে, আবুল কালাম আজাদকে রংপুর পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারে, ইকবাল হেসেনকে রংপুর রেঞ্জে বদলি করা হয়েছে।

এছাড়া শাহ মিজান শাফিউর রহমানকে ঢাকা মহানগর পুলিশে, কামরুল আহসানকে সিআইডিতে, গোলাম রউফ খানকে পিবিআইয়ে, শফিকুল ইসলামকে সিলেট মহানগর পুলিশে, তবারক উল্লাহকে তার বর্তমান কর্মস্থল টিএন্ডআইএমে, সালমা বেগমকে রাজশাহী মহানগর পুলিশে, মিরাজ উদ্দিনকে রাজশাহী রেঞ্জে এবং জিহাদুল কবিরকে ঢাকা রেঞ্জে পদায়ন করা হয়েছে।

Ads
Ads