ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে মাঠে নামছে আওয়ামী লীগ

  • ২৯-Jul-২০১৯ ০৫:২০ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

চলতি বছর ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা রেকর্ড ছাড়িয়েছে। ঢাকায় এরই মধ্যে ১০ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে। তিন জন চিকিৎসক, ঢাকা এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন করে শিক্ষার্থীসহ ২৫ জনেরও বেশি মানুষের মৃত্যুর তথ্য এসেছে গণমাধ্যমে। যদিও সরকারি হিসেবে মৃতের সংখ্যা আরো কম।

এমন ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যেও ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে কার্যকর কোনও পদক্ষেপ নিতে পারেনি দুই সিটি করপোরেশন ও স্বাস্থ্য বিভাগ। এমন পরিস্থিতিতে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ দেশের ২১ জেলায় ডেঙ্গু রোগী শনাক্তের পরিপ্রেক্ষিতে এই রোগের বাহক এডিস মশার উৎসস্থল পরিচ্ছন্ন করতে মাঠে নামছে।

সোমবার (২৯ জুলাই) দুপুরে ধানমন্ডিতে সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে এ কথা জানান দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রায় ২১টি জেলায় ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়েছে। এটা নিয়ে আমাদের করণীয় আছে। শুধু সরকারি দায়িত্ব পালনের মধ্যে আমাদের কর্মকাণ্ড স্বীমিত রাখতে চাই না। দলীয়ভাবে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি তিনদিনব্যাপী সচেতনতামূলক, সতর্কতা মুলক ও পরিচ্ছন্নতা অভিযান পালন করব।

তিনি বলেন, ৩১ জুলাই, ২ আগস্ট ও ৩ আগস্ট বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত সারা বাংলাদেশের জেলা উপজেলা ইউনিয়ন পর্যন্ত পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করব। এর সঙ্গে সতর্কতা ও সচেতনতামূলক লিফলেটও বিতরণ করব। এটা আমাদের দলীয় প্রধান জননেত্রী নেত্রীর নির্দেশে দলীয় কর্মসূচি। ডেঙ্গু বিরোধী পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালিত হবে।

ডেঙ্গু নিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনের মন্তব্য নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, তাদেরকে (দুই মেয়র) যা বলা প্রয়োজন ছিল, তা বলে দেওয়া হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিদিনই দুই মেয়রের সঙ্গে কথা বলছেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলছেন। যখন যার সঙ্গে কথা বলা দরকার বলছেন। তাদের কথা বার্তায় স্লিপ হতে পারে, তারাও তো মানুষ। তবে তাদের আন্তিরিকতা আছে।

কাদের বলেন, ডেঙ্গু একটা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এই ব্যপারে আমরা সবাই সচেতন। প্রথম দিকে এতটা প্রকট হবে এটা হয়ত বা কেউ ভাবেনি। যখন এর বিস্তার ভয়াবহ পর্যায়ে চলে এসেছে, তখন কিন্তু আমরা কেউ নিষ্ক্রিয় থাকিনি। দলীয়ভাবেও চেষ্ট করছি। আমাদের প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসার জন্য লন্ডনে আছেন। চিকিৎসার ব্যপারটা না হলে এই মুহূর্তে বিদেশে থাকার কথা নয়।  তিনি আমাদের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা চলাকালেও  ফোন করে নির্দেশনা দিয়েছেন। দুই মেয়রের সঙ্গে প্রতি নিয়তই টেলিফোনে কথা বলছেন, নির্দেশনা দিচ্ছেন।

ডেঙ্গু নিয়ে আগেই সতর্ক করা হয়েছিল বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বক্তব্যে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে সড়ক মন্ত্রী বলেন, ডেঙ্গুর যে ভয়, সে ভয়কে আমরা জয় করব বলে বিশ্বাস করি।

ডেঙ্গু মশা নিধনে কার্যকর ওষুধ ছিটানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা আগের ওষুধের অকার‌্যকারিতার প্রমাণ কি না, এমন প্রশ্নের মুখেও পড়েন কাদের। জবাবে তিনি বলেন, সেটা না, দীর্ঘ দিন হয়ত ওষুধ পড়ে থাকার কারণে কার‌্যকারিতা হারাতে পারে, এর জন্যই কার‌্যকর ওষুধ প্রয়োগের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’ 

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম, বি এম মোজাম্মেল হক, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক সামসুন্নাহার চাপা, বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া  সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

Ads
Ads