কালিহাতীতে প্রতিবন্ধী ধর্ষণ ভিডিও ধারণ, আটক এক

  • ১৭-Jun-২০১৯ ০৯:৩৬ অপরাহ্ন
Ads

:: আব্দুস সাত্তার, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ::

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে এক প্রতিবন্ধী যুবতীকে পালাক্রমে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক যুবক ও এক তরুণের বিরুদ্ধে। কালিহাতী উপজেলার নারান্দিয়া ইউনিয়নের পিচুটিয়া ও কুরুয়া এলাকার বাজারে এক দোকানে এ ঘটনাটি ঘটে। ঘটনা শুনে স্থানীয়রা ক্ষিপ্ত হয়ে ওই দোকান তালা লাগিয়ে দেয়।

প্রতিবন্ধী ধর্ষণের ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ও তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। রোববার বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে পুলিশ অভিযুক্ত আনিছকে আটক করেছে। এ ঘটনায় প্রতিবন্ধীর চাচাতো ভাই মুক্তিযোদ্ধা মোসফিকুর রহমান বাদী হয়ে কুরুয়া গ্রমের রইজ উদ্দিনের ছেলে রাজিব (৩০) ও পিচুরিয়া গ্রামের মৃত আঃ বাছেদের ছেলে আনিছ (৫২) কে আসামী করে কালিহাতী থানায় মামলা দায়ের করেছে। মামলার বাদী ও ওই প্রতিবন্ধির ভাই মুক্তিযোদ্ধা মোসফিকুর রহমান জানান, আমার মানসিক প্রতিবন্ধী বোন বাড়ীতে কাউকে না জানিয়ে বাহির হয়ে যায়। গত ১২ জুন রাতে রাজিব ও আনিছ আমার মানসিক প্রতিবন্ধী বোনকে সদাই দিবে বলে লোভ দেখিয়ে রাজিবের দোকানে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারন করে বলে তিনি জানতে পান স্থানীয়দের কাছে।  

স্থানীয়রা জানান, ১২ জুন বুধবার রাতে লম্পট রাজিব ও আনিছ ওই প্রতিবন্ধীকে প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে নিয়ে রাজিবের দোকানে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারন করে। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়। পরে স্থানীয় মাতাব্বররা ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে। এলাকায় জানাজানি হওয়ার পর থেকে অভিযুক্ত রাজিব ও আনিছ পলাতক থাকে।

কালিহাতী থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেন জানান, ১৫ জুন শনিবার বিষয়টি জানতে পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয় এবং ওই প্রতিবন্ধীর অভিভাবককে থানায় আসতে বলা হয়। রোববার দুপুরে ওই মানসিক প্রতিবন্ধীর কোন ভাই-বোন, মা-বাবা না থাকায় চাচাতো ভাই মোসফিকুর রহমান থানায় মামলা দায়ের করেন। আমরা অভিযুক্ত আনিছকে আটক করেছি ও অপর অভিযুক্ত রাজিব পলাতক রয়েছে এবং তাকে গ্রেফতারে চেষ্টা অব্যাহত আছে। সোমবার প্রতিবন্ধীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

Ads
Ads