ছাত্রদলের নতুন সাধারণ সম্পাদক হচ্ছেন ডাকসু ভিপি নুরু!

  • ২-Jun-২০১৯ ০৫:১৮ অপরাহ্ন
Ads

উৎপল দাস

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) সহ-সভাপতি নুরুল হক নুরুকে বিএনপির ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রদলের পরবর্তী সাধারণ সম্পাদক হিসাবে পছন্দের শীর্ষ তালিকায় রেখেছেন লণ্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। 

ঈদের পরই ছাত্রদলের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হবে বলেও নিশ্চিত করেছে বিএনপির কয়েকটি নির্ভরযোগ্য সূত্র। সূত্র আরো জানিয়েছে, লন্ডন থেকেই এবার ছাত্রদলের শীর্ষ নেতার নাম আসবে। সে তালিকায়  তারেক রহমানের সবার পছন্দের তালিকায় রয়েছেন অভিনয়ে পারদর্শী ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরু। তাকে সাধারণ সম্পাদক করার বিষয়েও মোটামুটি সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করে ফেলেছেন তারেক রহমান। যেহেতু ডাকসুতে নুরুর একটি শীর্ষ পদ রয়েছে, তাই তাকে ছাত্রদলের শীর্ষ পদে বসাতে পারলেই প্রাচ্যের অক্সফোর্ডখ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নিজেদের অস্তিত্ব খুব ভালোভাবে জানান দিতে পারবে সংগঠনটি। এই সমীকরণে ছাত্রদলের শীর্ষপদে নুরুকে দেখা গেলে অবাক হওয়ারও কিছুই থাকবে না। 

এদিকে, বিএনপির প্রভাবশালী নেতা ড. মঈন খান থেকে শুরু করে ঐক্যজোটের নেতা ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে সম্প্রতি ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসে আয়োজিত এক ইফতার মাহফিলে একান্ত আলাপচারিতায় মজেছিলেন। সেখানেও তাকে ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ার জন্য আহ্বান জানান ড. মঈন খান এবং ড. কামাল হোসেন। 

এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল শনিবার ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরু তারেক রহমানের পক্ষে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ডা: মাহবুবুর রহমান লিটনের সঙ্গে সাক্ষাত করেন।  এ সময় ঈদ সালামির নামে ডাকসু ভিপি নুরুর হাতে বেশ মোটা অংকের একটি খামও তুলে দেয়া হয়।  

তারেক রহমানের ঘনিষ্ঠ হিসাবে পরিচিত ডা. মাহবুবুর রহমানের হাত দিয়ে মূলত লন্ডন থেকেই নুরুর হাতে ঈদ সালামি এসেছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।  ভবিষ্যতেও তারেক রহমানের কথায় চললে এমন আর্শিবাদ এবং আর্থিক সহায়তা পাওয়া যাবে বলেও নিশ্চিত করেছে আরেকটি সূত্র। 

এদিকে, নুরুকে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক করা হবে এমন একটি সংবাদ ছাত্রদলের  ত্যাগী নেতাদের মধ্যে হতাশার সৃষ্টি করেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক পদপ্রত্যাশী ছাত্রদল নেতা ভোরের পাতাকে বলেন, আমরা সারাবছর সরকারের জেল, জুলুম, অত্যাচার সহ্য করে রাজনীতি করেছি, এখন যদি নুরুর মতো একজন ভন্ড যদি ছাত্রদলের রাজনীতিতে আসতে পারে, তাহলে আর রাজনীতিই করবো না। 

এসব বিষয়ে ডাকসু ভিপি নুরুকে গতকাল শনিবার থেকে কয়েকবার চেষ্টা করেও তার ব্যবহৃত গ্রামীণ ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া গেছে। 

Ads
Ads