ছাত্রলীগে বিতর্কিতদের বিষয়ে অধিকতর তদন্ত হবে: ক্ষমা চাইলেন বিদ্রোহীরা

  • ২০-মে-২০১৯ ১২:০৫ অপরাহ্ন
Ads

উৎপল দাস

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যাদের বিরুদ্ধেই অভিযোগ এসেছে তাদের বিষয়ে অধিকতর তদন্ত করে প্রয়োজনীয় সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে ভোরের পাতাকে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজ্জামেল হক। 

ছাত্রলীগ নিয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এই নেতার সঙ্গে ভোরের পাতার প্রতিবেদকের সোমবার সকাল ১১ টা ১৭ মিনিটে গতকাল রাতের বৈঠক নিয়ে কথা হয়। বৈঠকের সিদ্ধান্তের বিষয়ে জানতে চাইলে বিএম মোজাম্মেল হক বলেন, আমরা উভয় পক্ষকে ডেকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে একটা শান্তিপূর্ণ মিমাংসা করেছি। 
বিতর্কিতদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত কি হবে সেটি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে বি এম মোজাম্মেল হক আরো বলেন, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এসেছে, তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে অভিযোগ প্রমাণিত হলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে। এটি করতে কিছুটা সময় লাগবে। সেই সময়ে বিদ্রোহীরা আর কোনো আন্দোলন করবে না বলেও তারা স্বীকার করেছে। 

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের টুঙ্গিপাড়ার মাজার এবং ৩২ নম্বরে তার প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন কবে করবে এমন কোনো সিদ্ধান্ত হয়েছে কিনা তা জানতে চাইলে বলেন, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমতি নিয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী এই কাজ করার সিদ্ধান্ত নিবেন। 

 বৈঠকে উপস্থিত আরেকটি সূত্র জানিয়েছে, পদবঞ্চিত হয়ে যারা এই কয়েকদিন বিভিন্ন আন্দোলন করেছেন তাদের শেখ হাসিনার আদর্শের প্রশ্নে নোংরামি চলে না এমন কথা বলা হলে, সবাই চুপ হয়ে যান। চাপের মুখে বিএম লিপি আক্তারসহ বিদ্রোহীরা ক্ষমা চান বলেও দাবি করেন তারা। 

তবে এই কয়েকদিন ধরে চলমান সংকটের একটি সমাধান হওয়ায় কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে ছাত্রলীগের ভেতরে বাইরে। ভবিষ্যতে ছাত্রলীগের অভ্যন্তরীণ এমন সংকট যেন দেখা না দেয়, সে জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার অনুরোধ করেছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা। তারা উভয়পক্ষকে বলেছেন, শেখ হাসিনাই ছাত্রলীগের পরিপূর্ণ গঠনতন্ত্র। তার সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। নিজেদের মধ্যে বিরোধ করে অপরপক্ষকে সুযোগ করে দিলে তা নিয়ে ফায়দা লুটবে অন্যরা। যারা প্রকৃতপক্ষে শেখ হাসিনার সৈনিক তারা কেন এই ফায়দা লুটার সুযোগ দিবে। শেখ হাসিনার দিকে তাকিয়ে যেন, সবাই মিলে মিশে কাজ করেন সেদিকে খেয়াল রাখার অনুরোধও করা হয়। 

এদিকে, ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক খুব দ্রুততম সময়ের মধ্যেই ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করে নতুন  উদ্যমে সবাইকে সাথে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ ছাত্রলীগ উপহার দিবেন বলে জানা গেছে। 

Ads
Ads