শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে বেড়েই চলেছে দালালদের দৌরাত্ম

  • ২৮-Apr-২০১৯ ০৫:৪২ অপরাহ্ন
Ads

:: মোঃ জামাল মল্লিক, শরীয়তপুর ব্যুরো ::

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে বেড়েই চলেছে দালালদের দৌরাত্ম। যতই বাড়ছে ক্লিনিক ততই বাড়ছে দালালদের সংখ্যা। হাসপাতালে সিসি ক্যামেরা থাকার পরেও কমছে না দালালদেও দৌরাত্ম। আর ভোগান্তিতে পড়ছেন জেলার  দূর-দূরান্ত থেকে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা।

সরেজমিন ঘুরে জানা গেছে, হাসপাতালের ঢোকার গেট থেকে শুরু করে টিকেট কাউন্টার, রোগীদের বসার টেবিল,ডাক্তারদের গেটে কমপক্ষে ৩০-৪০ জন দালাল সক্রিয় হয়ে কাজ করে চলেছে। এছাড়াও অর্থপেডিক,মেডিসিন ও মিশু সহ প্রায় প্রতিটি বিভাগে কোন এ্যাসিসটেন্ট না থাকায়,এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে দালালদের দৌরাত্ম চোখে পড়ার মতো। হাসপাতালে বিভিন্ন চিকিৎসকের রুমে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের পরিক্ষা-নিরিক্ষা দরকার হলে তা চিকিৎসক লিখে দেন। এসময় রোগীরা চিকিৎসকের রুম থেকে পের হওয়ার পথেই উৎপেতে থাকা দালালরা তাদের ব্যবস্থাপত্র ছিনিয়ে নিয়ে তাদের পছন্দের ক্লিনিকে নিয়ে যান। এবং বিভিন্ন পরিক্ষা-নিরিক্ষা থেকে কমিশন পান দালালরা। কিছু পরিক্ষা-নিরিক্ষা হাসপাতালে করা গেলেও দালালদের কারনে তা করাতে পারছেন না রোগীরা। ক্লিনিকে গিয়ে মোটা অংকের টাকা গুনে দিতে হচ্ছে রোগীদের।

এব্যাপারে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ মোঃ আব্দুল্লাহ জানান,হাসপাতালের বিভিন্ন বিষয়ে আমি সবার পরামর্শ নিচ্ছি। দালালদের দৌরাত্মর কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, আগের চাইতে দালালের সংখ্যা অনেকটা কমেছে। অতি দ্রুত দালালদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

Ads
Ads