সীমানা পেরিয়ে
শুক্রবার, ১৮ আগস্ট ২০১৭ ৩ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় সমাবেশে সংঘর্ষ, নিহত ৩

:: ভোরের পাতা অনলাইন ::

সহিংসতায় রূপ নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের চার্লোটেসভিলে শহরে শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের বিক্ষোভ। গতকাল শনিবার (১২ আগস্ট) শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের বিক্ষোভের বিরুদ্ধে ডাকা পাল্টা-বিক্ষোভকারীদের ওপর একটি গাড়ি চালিয়ে দেওয়া হয়। এতে কমপক্ষে একজন নিহত ও ১৯ জন আহত হয়েছেন।

এদিকে ওই বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে ভার্জিনিয়ার আরও দুজন পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন। তাঁরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছিলেন। বিক্ষোভকারীদের অবস্থানের কাছাকাছি এলাকায় একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ওই দুজন নিহত হন।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই সহিংসতার নিন্দা জানিয়েছেন। তবে সুনির্দিষ্টভাবে শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের সমালোচনা না করায় সমালোচিত হচ্ছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। খবর বিবিসি, এএফপি ও রয়টার্সের।

বর্ণবাদবিরোধীদের ভিড়ের মধ্যে গাড়ি ঢুকিয়ে দিলে একজন এবং সমাবেশের পাশে একটি হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় আরো দুজন নিহত হয়েছেন। কবে হেলিকপ্টারটি কীভাবে দুর্ঘটনার কবলে পড়ল, তা তদন্ত করে দেখছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বার্তা সংস্থা এএফপি ও বিবিসির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, পরিস্থিতি সামলাতে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। অনেককে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং রাজ্যে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, চারলটসভিলের ইমানসিপেশন পার্ক থেকে আমেরিকার গৃহযুদ্ধকালীন একজন জেনারেলের ভাস্কর্য অপসারণের বিরোধিতা করে ডানপন্থি শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদীরা বিক্ষোভের জন্য জড়ো হয়েছিল।

১৮৬১ থেকে ৬৫ সাল পর্যন্ত আমেরিকার গৃহযুদ্ধে দাসপ্রথার পক্ষে ‘কনফেডারেট’ বাহিনীকে নেতৃত্ব দেওয়া জেনারেল রবার্ট ই লি এর ভাস্কর্য অপসারণের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সকালে সমবেত হন তারা। কনফেডারেট পতাকা নিয়ে নাৎসি আমলের নানা স্লোগান সহকারে পার্কের ওই ভাস্কর্য অভিমুখে যাত্রা করেন। এ সময় অনেকের মাথায় হেলমেট ও হাতে ঢাল দেখা যায়।

তাদের বিরোধিতা করে কয়েকশ মানুষ ওই এলাকায় সমবেত হন। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। হাতাহাতি, বোতল ও পাথরের টুকরো নিক্ষেপের পাশাপাশি পিপার স্প্রে ব্যবহারের ঘটনা ঘটে এ সময়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাঁদুনে গ্যাসের শেল ছোড়ে পুলিশ।

দুপক্ষের মধ্যে কয়েক ঘণ্টা ধরে সংঘর্ষ চলার পর উভয়পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। এ সময় পার্কটি থেকে দুই ব্লক দূরে বিরোধীদের ভিড়ে একটি চলন্ত গাড়ি ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। এতে ৩২ বছর বয়সী এক নারী নিহত হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রূপালি রঙের সেডান গাড়িটি দ্রুতবেগে ভিড়ের মধ্যে ঢুকে আবার যে পথ ধরে এসেছিল সেদিক দিয়েই পিছিয়ে দ্রুতবেগে চলে যায়। সোস্যাল মিডিয়ায় আসা ভিডিও ও রয়টার্সের আলোকচিত্রে দেখা যায়, গাড়ির ধাক্কায় উড়ে গিয়ে পড়েন কয়েকজন।

সেখান থেকে আহত ২০ জনকে ইউনিভার্সিটি অব ভার্জিনিয়া হেলথ সিস্টেমসে নেওয়া হয়। তাদেরই একজনের মৃত্যু হয়েছে বলে হাসপাতালের একজন মুখপাত্র জানান।

সংঘর্ষ চলার সময় ওই এলাকা থেকে ১১ কিলোমিটার দূরে পুলিশের একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ভার্জিনিয়া পুলিশের দুই সদস্য নিহত হন। হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের কারণ পরিষ্কার হয়নি।

ভার্জিনিয়ার ডেমোক্র্যাট গভর্নর টেরি ম্যাকুলিফ শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের বাড়ি চলে যেতে বলেছেন। এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আজ শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদী ও নাৎসীরা যারা চার্লোটেসভিলেতে এসেছেন, তাঁদের সবার জন্য আমার সহজ-সরল বার্তা হলো: বাড়ি চলে যান। এখানে আপনাদের দরকার নেই। আপনাদের প্রতি ঘৃণা।’

এই সহিংসতার নিন্দা জানিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একটি টুইটার বার্তায় বলেছেন, ‘আমাদের সবার ঐক্যবদ্ধভাবে সব ধরনের বিদ্বেষের বিরুদ্ধে দাঁড়ানো উচিত। আমেরিকায় এ রকম সহিংসতার কোনো জায়গা নেই।’

শার্লোটসভিল একটি উদারপন্থী শহর হিসেবেই পরিচিত। যুক্তরাষ্ট্রের গত প্রেসিডেন্সিয়াল নির্বাচনে এই শহরের ৮৬ শতাংশ ভোট পেয়েছিলেন হিলারি ক্লিনটন। তবে এখানকার কাউন্সিল কর্তৃপক্ষ জেনারেল লির ভাস্কর্য সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর শহরটি শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের লক্ষ্য হয়ে ওঠে।

 

অনলাইন/এইচটি 

সীমানা পেরিয়ে | আরো খবর