চারুপাতা
শুক্রবার, ১৮ আগস্ট ২০১৭ ৩ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

মাশরাফির হাতে ‘আনন্দবাজার সেরা বাঙালি-২০১৭’ পুরস্কার

:: ভোরের পাতা অনলাইন ::

শনিবার রাতে কলকাতায় এক জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ‘আনন্দবাজার সেরা বাঙালি-২০১৭’ এর পুরস্কার গ্রহণ করলেন মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। টাইগার এই অধিনায়কের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ভারতীয় নারী ক্রিকেটার ও মেয়েদের ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি ঝুলন গোস্বামী।

মাশরাফির হাতে এই পুরস্কার তুলে দিয়েছেন ভারতীয় নারী ক্রিকেটার ঝুলন গোস্বামী। পুরস্কার দেওয়া আগে পর্দায় দেখানো হয় মাশরাফিকে নিয়ে তৈরি একটি প্রামাণ্য চিত্র। সেখানে ফুটে ওঠে অধিনায়কের ক্যারিয়ারের স্মরণীয় সব মুহূর্ত। বলা হয়, তাঁর সফল নেতৃত্বে বাংলাদেশ দল কীভাবে সামনে এগোচ্ছে।

প্রতি বছরই বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখা বাঙালিদের পুরস্কৃত করে থাকে এবিপি মিডিয়া গ্রুপ। ২০০৭ সালে বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক হাবিবুল বাশার ও ২০১২ সালে এই পুরস্কার পান সাকিব আল হাসান। পাঁচ বছর পর আবার বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটারের হাতে উঠেছে এই পুরস্কার।

পুরস্কার গ্রহণ শেষে মঙ্গলবার দেশে ফেরার কথা মাশরাফির। এর আগে বেশ কয়েকজন তারকা ক্রিকেটার এই পুরস্কার পেয়েছিলেন। ২০০৭ সালে বাংলাদেশ দলের সাবেক দলনেতা হাবিবুল বাশার এবং ভারতের সৌরভ গাঙ্গুলি পুরস্কারটি লাভ করেন। এছাড়া সাকিব আল হাসান, ভারতের মনোজ তিওয়ারি ও নারী ক্রিকেটার ঝুলন গোস্বামী ২০১২ সালে পুরস্কার পান।

উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নামার আগে ক্রিকেটের এই ফরম্যাটকে বিদায় বলে দেন মাশরাফি। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে রাঙাচ্ছেন মাশরাফি। হয় ব্যাটে না হয় বলে।

২০০৬ সালে খুলনায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয় তার। এরপর দেশের জার্সিতে ৫৪টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন মাশরাফী। বল হাতে শিকার করেছেন ৪২টি উইকেট। ব্যাট হাতে ৩৯ ইনিংসে করেছেন ৩৭৭ রান। সর্বোচ্চ ৩৬। অপরাজিত ছিলেন ১১ বার। টি-টোয়েন্টিতে রেকর্ড ২৮টি ম্যাচে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফী। তার নেতৃত্বে লাল-সবুজের দেশটি জিতেছে ১০টি ম্যাচ। যেটা অধিনায়ক হিসেবে কোনো বাংলাদেশির সর্বোচ্চ সাফল্য।

খেলেছেন ৩৬টি টেস্ট। নিয়েছেন ৭৮টি উইকেট। গড় ৪১.৫২, ইকনোমি রেট ৩.২৪ করে। রান করেছেন ৭৯৭। এছাড়া অদ্যাবধি ওয়ানডে খেলেছেন ১৭৯ ম্যাচ। উইকেট শিকার করেছেন ২৩২টি। সেরা বোলিং ফিগার ২৬ রানে ৬ উইকেট। রান করেছেন ১৫৮৭।

অন্যদিকে অভিনয়য়ের ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসাবে এবিপি আনন্দের সেরা বাঙালি ২০১৭ পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাদেশের প্রখ্যাত অভিনেত্রী জয়া আহসান। জয়ার হাতে এই পুরস্কার হাতে তুলে দেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

এর আগে এই পুরস্কার পেয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তী, সব্যসাচী চক্রবর্তী, পাওলি দাম, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, রাহুল বোস, দেবশঙ্কর হালদারের মতো ব্যক্তিত্বরা। এবিপি আনন্দের মতে অসাধারণ অভিনয় দক্ষতায় দুই বাংলার হৃদয় জয় করে নিয়েছেন জয়া।

 

অনলাইন/এইচটি 

চারুপাতা | আরো খবর