আনন্দবাজার

‘ভাল গল্পের চলচ্চিত্রে কাজ করতে চাই’

সময়ের ব্যস্ততম অভিনেত্রী শম্পা হাসনাইন। টেলিভিশন নাটকের পাশাপশি কাজ করছেন চলচ্চিত্রে। টেলিভিশন নাটকের বর্তনাম অবস্থা ও তার কর্ম ব্যস্ততা নিয়ে কথা বললেন আনন্দবাজারের সাথে।

বর্তমান ব্যস্ততা প্রসঙ্গ জানতে চাই
ধারাবাহিক নাটকের কাজ নিয়েই ব্যস্ত্য সময় পার করছি। গত তিন দিন যাবৎ একটা সুটিং করেছি এটিএন বাংলায় চলমান ধারাবাহিক ফুল আর কাটা। ফেরদৌস হাসান রানা’র পরিচালিত এই নাটকটির শেষ লটের সুটিং ছিল। এছাড়া এটিএন বাংলাতে আরও চলছে মোহন খানের পরিচালনায় ‘নীড় খোজে গাংচিল’ বিটিভিতে চলছে আপেল মাহমুদের পরিচালনায় ‘সাদা কালো মেঘ’, বৌশাখী টেলিভিশনের ‘চাপাবাজ’। আগমী ১৫ তারিখ থেকে এনটিভিতে চলমান ধারাবহিক ‘সানফ্লয়ার’ নাটকে কাজ শুরু করব।

ধাবাহিকের বাইরে এক ঘন্টার নাটকে খুব একটা দেখা যায়না কেন?
এটা ঠিক যে খন্ড নাটকে খুব একটা কাজ করা হয়না। কারণ ধারাবাহি নিয়েই বেশি ব্যস্ত থাকি। এখানে এক টানা সিডিউল দেওয়া থাকে। একটার পর অন্যটাতে। এর ফাকে সিডিউল খুব একটা ফাকা থাকেনা। যে কারণে প্রস্তাব আসলেও তাতে সারা দেওয়া অনেক সময় সম্ভব হয়ে উঠেনা। তবে দুই ঈদ, ভালবাসা দিবস বা বিশেষ দিবসগুলোতে খন্ড নাটকের কাজ করে থাকি।

বর্তমানে নাটকের মানের বিষয়ে আপনার মন্তব্য কি?
বরাবরের মত এখনও অনেক ভাল ভাল নাটক আমাদের ইনড্রাষ্টিতে হচ্ছে। বিটিবি’র আমলের নাটক খুব ভাল হতো। তবে তখন একটি মাত্য চ্যানেল থাকায় সেই নাটকের মান নিয়ে তুলনা করার সুযোগ ছিল না। কিন্তু এখন আমাদের পচিশটির উপরে টেলিভিশন চ্যানেল, রয়েছে ভাতীয় চ্যানেলের চাপ। এর সাথে যুক্ত হয়েছে বাংলা ডাবিংকৃত ধারাবাহিক। তারপরও দর্শক আমাদের নাটক দেখছেন। আর নাটকের মান ভাল হচ্ছে বলেই দর্শক তা দেখছেন। তবে এর ব্যতিক্রম দু-চারটিতো হতেই পারে। সেটা কোন উল্যেখ যোগ্য সংখ্যা না বলেই মনে করি।

চলচ্চিত্রের কাজের খবর বলুন
এমাসের শেষের দিকে শুরু হবে আমার নতুন চলচ্চিত্রের কাজ। তাজু কামরুলের পরিচালনায় ‘শ্রবণ তোমাকে’ চলচ্চিত্রটি আমার অষ্টম চলচ্চিত্র। এতে আমার সহশিল্পী ইমন। বান্দরবন থেকে গানের সুটিং দিয়ে শুরু হচ্ছে এর কাজ। নাটকের কাজে বেশি ব্যস্ততার জন্যই চলচ্চিত্রে কাজ কম করা হয়। আমি ভাল গল্পের চলচ্চিত্রে কাজ করতে চাই। চলচ্চিত্রের জন্যই ইনড্রাষ্টিতে আসা। মাঝে মধ্যে প্রস্তাব আসলেও গল্প পছন্দ না হলে তাতে সাই দেই না। এছাড়া পরিচলক প্রডাকসন পুরো টিমের সাথে সাচ্ছন্দে কাজ করাটা আমি খুব পছন্দ করি। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে আমার ‘ওয়ান ওয়ে রোড’ ও এক্সকিউজ মি’ চলচ্চিত্র দুটি।

 

ভোরের পাতা অনলাইন/জিআর

আপনার মন্তব্য লিখুন

আনন্দবাজার | আরো খবর