বইমেলায় সাড়া ফেলেছে সাইফুর রহমান সোহাগের ‘ছাত্রলীগের ইতিহাস বাংলাদেশের ইতিহাস’

শুক্রবার , ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, ৯:৪৭ অপরাহ্ন

:: তোষিকে কাইফু ::

অমর একুশে বইমেলা আজ মধ্যগগণে। দিন যতই সামনের দিকে যাচ্ছে মেলা ততই জমতে শুরু করছে। শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ছুটির দিন থাকায় অন্যদিনের চেয়ে একটু বেশি ভিড় জমেছিল গ্রন্থমেলায়। ফলে মেলাতে প্রবেশের নির্ধারিত সময়ে আগেই ঢুকতে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়াতে হয়েছিল বই প্রেমিদের। গেইট খোলার কিছুক্ষনের মধ্যেই জনারন্যে পরিণত হয়েছিল মেলা প্রাঙ্গন। বইয়ের বিক্রি ভালো হওয়ায় খুশি প্রকাশকরাও।

সরেজমিনে মেলা ঘুরে দেখা যায়, আজ শুক্রবার ছুটির দিন থাকায় মেলায় দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় ছিল। বিভিন্ন স্টলে বিক্রি যেমন বেশি ছিল ঠিক তেমনি লেখক- প্রকাশকদের উপস্থিতিও ছিল চোখে পড়বার মত।
নামকরা লেখকদের পাশাপাশি মেলায় প্রথমবারের মতো বই প্রকাশিত হয়েছে এমন নবাগত লেখকদের বই বিক্রিও ছিল চোখে পড়বার মতো। এমনটি লক্ষ্য করা যায় বাংলাদেশ ছাএলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগের লেখা বইয়ের ক্ষেত্রে। তাঁর লেখা ‘ছাত্রলীগের ইতিহাস বাংলাদেশের ইতিহাস’ নামক বইটি গতকালের ন্যায় আজও চাহিদার র্শীষে তালিকায় স্থান করে নেয়।

বইটি সর্ম্পকে সাইফুর রহমান সোহাগ ভোররে পাতাকে বলনে, ‘ইতোমধ্যে বইটি বাজারে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। আশা করি তরুণ প্রজন্ম বইটি পড়ে ছাত্রলীগ, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ সর্ম্পকে অনেক কিছু জানতে পারবে। ১৯৪৮ সাল থেকে বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সকল আন্দোলন সংগ্রাম, ইতিহাস ঐতিহ্যের কথা বইটিতে সুনিপুনভাবে উল্লেখ করা হয়েছে। আমার বিশ্বাস বইটি পড়ে পাঠকদের ভাল লাগবে। আর পাঠকদের ভাল লাগাই তো আমার চলার পথে অনুপ্ররেণা।’

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক শেখ ফয়সাল আমিন বলেন, ‘১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের পটভূমি থেকে ২০১৭ সালের আজকের যে বাংলাদেশ, সেই বাংলাদেশের সকল আন্দোলন, সংগ্রাম, র্অজন ও গৌরবের বীরত্বগাঁথা রচনা করেছে বাংলাদশে ছাত্রলীগ। অথচ অত্যন্ত ব্যথিত হৃদয়ে বলতে হয় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সত্য ইতিহাস সব সময় উপেক্ষিত হয়েছে নানাবিধ ষড়যন্ত্রের বেড়াজালে।

বাংলাদশে ছাত্রলীগরে সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগের গ্রন্থ ‘ছাত্রলীগের ইতিহাস বাংলাদেশের ইতিহাস’ প্রথম খণ্ডে ১৯৪৮ থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত ছাত্রলীগের ইতিহাসকে মেঘের আঁড়াল থেকে সূর্যের মত স্বমহিমায় আমাদের সামনে এনেছে। আজ আমরা ছাত্রলীগের ইতিহাসের আলোয় আলোকিত।

ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন শাহজাদা বলেন, ‘গতকাল বৃহস্পতিবার ৬,৫০০ কপিরও বেশি বই বিক্রি হয়েছে। শুক্রবার বিকাল পর্যন্ত ৮,০০০ কপিরও বেশি বিক্রয় হয়েছে। আশা করছি বিক্রয়ের সংখ্যা আজকেই ১০ হাজার কপি অতিক্রম করবে।

শব্দশৈলী প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত বইটি একুশে গ্রন্থমেলায় ৩৫৭-৩৫৮ নং স্টলে পাওয়া যাবে। বইটি হাতে পেতে স্টলটির সামনে আগ্রহী পাঠকদের দীর্ঘলাইল লেগেই আছে। লাইনে দাড়িয়ে বইটি সংগ্রহ করতে পাঠকদের ধৈর্য ধারণ করতে হয়েছে, তবে বইটি হাতে পাওয়ার পর আগ্রহী ক্রেতাদেও চোখে-মুখে তৃপ্তির ঢেঁকুরের দেখা মিলেছে।

 

ভোরের পাতা/ডিএইচ 

WARNING: Assigned ad is expired! Extend the term or Delete it.
WARNING: Assigned ad is expired! Extend the term or Delete it.