লিড-১ হেডিং
শুক্রবার, ১৮ আগস্ট ২০১৭ ৩ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর জামাতা ও নাতনিকে পেয়ে পুলকিত সিরাজগঞ্জবাসী

:: ভোরের পাতা অনলাইন ::

বর্নাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর জামাতা খন্দকার মাশরুর হোসেনের উপস্থিতিতে বৃহস্পতিবার (৩ আগস্ট) বিকেলে সিরাজগঞ্জে ৯৪ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৬০০ মেয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বাইসাইকেল বিতরণ করা হয়। আগষ্ট মাসে শোককে শক্তিতে পরিণত করার প্রত্যয় নিয়ে নারীর ক্ষমতায়নে বাল্য বিবাহ রোধে এই সাইকেল বিতরণ কর্মসূচীর উদ্বোধন করা হয়েছে।

এগুলো বিতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মেয়ে সায়মা হোসেন পুতুলের স্বামী ও এলজিআরডি মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ছেলে খন্দকার মাশরুম হোসেন মিতু। এ সময় একটি সাইকেলে চড়ে বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন মাশরুম হোসেনের মেজো মেয়ে ও প্রধানমন্ত্রীর নাতনি আলীজা হোসেন।

খন্দকার মাসরুর বলেন, ‘বর্তমানে বাল্যবিবাহ যেন সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। আর এই ব্যাধি রুখতে হলে সামাজের সব শ্রেণির মানুষের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। কেবল সরকারের পক্ষে এই ব্যাধি সমাজ থেকে দূর করা সম্ভব নয়।’

 

সেনাবাহিনী ও এসএসএফে নারীর অংশগ্রহণের কথা উল্লেখ করে খন্দকার মাশরুর বলেন, ‘মাত্র ২০ বছর আগেও এ অবস্থা ছিল না। এখন সেখানে অনেক নারীর অংশগ্রহণ রয়েছে। বর্তমান সরকারের সহযোগিতায় নারীরা এখন অনেক এগিয়ে। প্রধানমন্ত্রী একজন নারী। এমপি-ডিসিসহ প্রশাসনের অনেক বড় বড় অবস্থানে নারী। নারীদের এখন অনেক বড় হওয়ার সুযোগ রয়েছে।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছাত্রীদের নিজের পায়ে দাঁড়ানোর পরামর্শ দেন খন্দকার মাশরুর। বাংলাদেশের নারীরা এখন বিশ্বে উল্লেখযোগ্য স্থানে রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তাই আর কোনো বাল্যবিবাহ নয়। বাল্যবিবাহ যেখানে প্রতিরোধ সেখানে।’ বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার তাগিদ দেন তিনি।

সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রিয়াজ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল লতিফ বিশ্বাস, সিরাজগঞ্জ-২ (সদর-কামারখন্দ) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃ মোঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না, এফবিসিসিআই এর পরিচালক সারিতা মিল্লাত, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য সেলিনা বেগম স্বপ্না, জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দীকা, পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ, অধ্যক্ষ প্রফেসর এসএম মনোয়ার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার মোহাম্মদ রায়হান।

সমাবেশে হৈমবালা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী হাফসা খাতুন নারীর ক্ষমতায়নে বাল্য বিবাহ রোধে বাইসাইকেল বিতরণ কর্মসূচিকে তার জীবনের একটি ব্যতিক্রমী কর্মসূচি আখ্যায়িত করে উল্লাসিত প্রশংসা করেন। পরে কলেজ মাঠ থেকে একটি সাইকেল র্যার্লী বের হয়ে বাজার ষ্টেশন মুক্তির সোপান চত্তরে গিয়ে শেষ হয়।

লিড-১ হেডিং | আরো খবর